কাউন্টার
কর্মপ্রার্থীদের জন্য নিয়োগকর্তাদের জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কাউন্টার Skill Provider ব্যবহার সংক্রান্ত নিয়ম-কানুন কেরিয়ার কর্নার
Egiye Bangla

যে প্রশ্নগুলি বার বার করা হয়

সাধারণ দর্শকদের জন্য
  • ১. আমি এই সাইটে নাম নথিভূক্ত করতে চাই না, এই সাইট থেকে আমি কি কোনো সুবিধা পেতে পারি?
  • উত্তর – হ্যাঁ। যদি আপনার নাম এখানে নথিভূক্ত নাও করেন আপনি সাধারণ দর্শকদের জন্য কাউন্টারের সব সুবিধাই পেতে পারেন। যেমন – সাইকোমেত্রিক টেস্ট, কেরিয়ার কর্নার, একজন নিয়োগকর্তা হউন, ই-বুলেটিন ইত্যাদি।
কর্মপ্রার্থীদের জন্য
  • ২. আমি একজন চাকরীজীবী। কেন আমি এখানে আমার নাম নথিভূক্ত করব?
  • উত্তর – এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্ক আপনাকে সেই অনন্য সুযোগ দিচ্ছে যাতে করে আপনি সেই সব উৎকৃষ্ট নিয়োগকর্তা, যাঁরা তাঁদের প্রতিষ্ঠানের জন্য অভিজ্ঞ লোক চাইছেন তাঁদের কাছে একজন অভিজ্ঞ কর্মী হিসেবে নিজের পরিচয়কে তুলে ধরতে পারেন।
  • ৩. আমি আমার ইউজার নাম ভুলে গেছি? আমি কী ভাবে তা উদ্ধার করব?
  • উত্তর – আপনি আপনার কাছাকাছি কর্মনিয়োগকেন্দ্রের সঙ্গে এক্সোগাযোগ করুন। তাঁরা আপনাকে আপনার ইউজার নাম উদ্ধারে সাহায্য করবে।
  • ৪. আমি আমার পাস্সওয়ার্ড ভুলে গেছি? আমি কী ভাবে লগ ইন করব?
  • উত্তর – লগ ইন পেজে দেখুন ‘পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?’ লিঙ্ক আছে। ওই লিঙ্কে ক্লিক করুন এবং এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্ক-কে দেওয়া আপনার ইমেল ঠিকানায় প্রবেশ করবেন। ‘সাবমিট’ বক্সটিতে ক্লিক করুন আমরা আপনার পাসওয়ার্ড পুনরায় সেট করার নির্দেশ পাঠাবো।
  • ৫. আমি কি নিজের তথ্য নিজেই আপডেট করতে পারব? কী ভাবে?
  • উত্তর – হ্যাঁ, নিজের ইউজার নেম ও পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে নিজের আকাউন্টে ঢুকে আপনি নিজের যোগ্যতা, অভিজ্ঞতা, দক্ষতা সবকিছুই আপডেট করতে পারবেন। তবে আপনার নথিভূক্তি সংখ্যা ও নথিভূক্তির তারিখ পরিবর্তন করতে পারবেন না বা অন্য কোনোভাবেই অন্য কারো আকাউন্টের কোনো বদল ঘটাতে পারবেন না।
  • ৬. আমি কি নিজের ইমেল ঠিকানা বা মোবাইল নাম্বার পরিবর্তন করতে পারি? কেমন করে?
  • উত্তর –ঠ্যাঁ পারবেন। আপডেট মেনু ব্যভার করে।
  • ৭. আমার নাম বাঁকুড়া কর্মবিনিয়োগ কেন্দ্রে নথিভূক্ত আছে। আমি কি এখানে নাম নথিভূক্তি করতে পারব?
  • উত্তর – হয়াঁ, পারবেন। পশ্চিম্বঙ্গের যে কোনো জেলায় বসবাসকারী যে কেউ এই সাইটে তাঁর নাম নথিভূক্ত করতে পারবেন।
  • ৮. দুর্ভাগ্যবশত আমার কর্মবিনিয়োগ কেন্দ্রে নথিভুক্তির কার্ডটি ল্যাপসড হয়ে গেছে। আমি কি এখানে নাম নথিভূক্ত করতে পারব?
  • উত্তর – হ্যাঁ পারবেন। এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্কে নাম নথিভূক্ত করতে হলে কর্মবিনিয়োগ কেন্দ্রে নথিভুক্তির কোনো প্রয়োজনীতা নেই । কোনো শূন্যপদে নাম বিবেচিত হবার জন্যে এখানে সিনিওরিটিরও কোন ভূমিকা নেই।
  • ৯. আমি দুর্গাপুরের বাসিন্দা। আমি বাড়ির কাছে কোনো কাজ আছে কিনা কী ভাবে খোঁজ করব?
  • উত্তর – অনুগ্রহ করে ‘জব সার্চ’-মেনুতে যান। কাজের জায়গা (location of work)-এর ভিত্তিতে কাজের খোঁজ করুন।
  • ১০. আমি কলাবিদ্যায় স্নাতক। আমি কি এই সাইট থেকে সরকারি চাকরি পেতে পারি?
  • উত্তর – এখন সমস্ত সরকারি চাকরির নিয়োগ নানান সার্ভিস কমিশন অথবা সরাসরি বিজঙাপনের মধ্যমে করা হচ্ছে। সেই সব বিজ্ঞাপন আপনি এখানে দেখতে পাবেন। যাই হোক, এই ধরণের নিয়োগের জন্য যে প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষা হয় আপনাকে তার জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে।
  • ১১. এখানে নাম নথিভূক্তি করার জন্য বয়সসীমা কত?
  • উত্তর – বয়স হতে হবে কমপক্ষে ১৮ বছর। বয়সের কোনো উর্ধ্বসীমা নেই।
  • ১২. আমার জীবিনপঞ্জী কারা দেখতে পারবেন?
  • উত্তর – কোনো নিয়োগকর্তা বা কর্মপ্রদানকারী সংস্থা তাঁদের কোম্পানি সংক্রান্ত কাগজপত্র পরীক্ষার মাধ্যমে এখানে যথাযথ নামনথিভূক্তি এবং তাঁর শূন্যপদ জানানোর পরই আপনার জীবনপঞ্জী দেখতে পাবেন, যদি তাঁর চাহিদার সঙ্গে আপুনার বয়স যোগ্যতা ইত্যাদি মিলে যায়।
  • ১৩. আমি কী করে জানতে পারব কারা আমার জীবনপঞ্জী দেখেছেন?
  • উত্তর – যখন একজন নথিভূক্ত কোনো নিয়োগকর্তা বা কর্মপ্রদানকারী সংস্থা কোনো শূন্যপদে বিবেচনার জন্য এই সাইট থেকে ডাউনলোডের মাধ্যমে আপনার জীবিনীপঞ্জীটি গ্রহণ করবেন, তখন আপনার মোবাইলে এসএমএস-এলার্ট যাবে বা আপনার ইমেলেও বার্তা যাবে।
  • ১৪. আমি উচ্চমাধ্যমিক (১০+২) পাশ করেছি। উচ্চশিক্ষা বা প্রশিক্ষ্ণণের জন্য ঋণ পাবার ব্যাপারে আমি কোথায় খোঁজ করব ?
  • উত্তর – আপনি আমাদের সাইটের কেরিয়ার কর্নার কাউন্টারে ক্লিক করে উচ্চশিক্ষা, প্রসিক্ষণের জন্য এ রাজ্যে বা বাইরে কী কী সুযোগ-সুবিধা আছে তার তথ্য খোঁজ করে দেখে নিতে পারেন।
  • ১৫. এই সাইটে বিজ্ঞাপিত কোনো শূন্যপদে আমি কী ভাবে আবেদন করব?
  • উত্তর – বিজ্ঞাপণে দেওয়া নির্দেশ মতো আপনি এই সাইটে বিজ্ঞাপিত শূন্যপদে আবেদন করতে পারেন।
  • ১৬. শূন্যপদের খোঁজ করার জন্য কি আমাকে লগ ইন করতে হবে?
  • উত্তর – হ্যাঁ, শূন্যপদের খোঁজ করার জন্য কি আপনাকে লগ ইন করতে হবে।
  • ১৭. সাইকোমেত্রিক টেস্ট দিয়ে আমি কি করতে পারি?
  • উত্তর – সাইকোমেত্রিক টেস্ত একটি আত্ম-নিরীক্ষার উপায় যা দিয়ে নিজের ক্ষমতা ও দুর্বলতা সম্পর্কে জ্ঞান লাভ করা যায় এবং যার সাহায্যে নিজেকে ভালো করে জেনে নিয়ে নিজের সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। এর সাহায্যে আপনার কিছু গুণ যেমন আগ্রহ, ঝোঁক, ব্যক্তিত্ত্ব, নৈতিকতা, দক্ষতা এই সব কিছুর গুণগত বিশ্লেষণ করে আরো ভালো করে নিজের জীবিকা নির্বাচন করতে পারবেন। এই মেনুটি শীঘ্রই চালু করা হবে।
  • ১৮. আমি বি.টেক. ইলেকত্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের অন্তিম বর্ষের ছাত্র আমি জানতে পারলাম আমার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে আমার জীবনপঞ্জী এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্ক ওয়েব পোর্টালে আপলোড করা হবে। আমি কী ভাবে সেখানে আমার তথ্য দেখতে পাব?
  • উত্তর – যখনি আপনার জীবনপঞ্জী এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্ক ওয়েব পোর্টালে আপলোড করা হবে সঙ্গে সঙ্গে আপনাকে এসএমএসে বার্তা পাথিয়ে আপনার নথিভূক্তি সংখ্যা, ইউজার আইডি ও অস্থায়ী পাসওয়ার্ড জানিয়ে দেওয়া হবে। সেই ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড ব্যভার করে আপনি আপনার তথ্যা দেখে নিতে পারবেন।
নিয়োগকর্তা / নিয়গ-প্রদানকারী সংস্থাদের জন্য
  • ১৯. এই সাইটে ‘জব পোস্টিং’ ব্যাপারটি কী?
  • উত্তর – একজন নিয়োগকর্তা বা কর্মপ্রদানকারী সংস্থা এই সাইটে যথাযথ নাম নথিভূক্তির পর ‘জব পোস্টিং’ -এর মাধ্যমে তাঁর সংস্থার শূন্যপদ জানিয়ে এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্কের তথ্য-ভাণ্ডার থেকে প্রয়োজন অনুযায়ী কর্মপ্রার্থীদের নামের তালিকা তৈরি করতে এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ডাউনলোড করতে পারবেন।
  • ২০. ‘শূন্যপদ পোস্ট করুন’ এবং ’শূন্যপদ বিঞ্জাপিত করুন’ এদের মধ্যে তফাৎ কী?
  • উত্তর – শূন্যপদ বিজ্ঞাপিত করে একজন নিয়োগকর্তা বা কর্মপ্রদানকারী সংস্থা কেবলমাত্র কর্মপ্রার্থীদের মনোযোগ আকর্ষণ করে তাঁদেরকে সরাসরি আবেদন পত্র পাঠাতে বলতে পারেন, অন্যদিকে শূন্যপদ পোস্ট করার মাধ্যমে একজন নিয়োগকর্তা বা কর্মপ্রদানকারী সংস্থা এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্কের তথ্য-ভাণ্ডার , যেখানে সম্ভাব্য কর্মপ্রার্থীরা বিবেচনার জন্য তাঁদের জীবনপঞ্জী জমা রেখেছেন, সেখান থেকে প্রয়োজন অনুযায়ী কর্মপ্রার্থীদের নামের তালিকা তৈরি করতে পারবেন।
  • ২১. আমি শিলিগুড়ির একজন নিয়োগকর্তা। কী ভাবে আমি এখানে শূন্যপদ পোস্ট করব?
  • উত্তর – আপনাকে এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্কে স্বাগত। আপনাকে প্রথমে নিয়োগকর্তাদের জন্য কাউন্টারে নিয়োগকর্তা হিসেবে প্রয়জনীয় তথ্য জানিয়ে নিজের নাম নাম নথিভূক্ত করতে হবে। যথাযথ নথিভূক্তির পর আপনি ‘শূনাপদ পোস্ট করুন’ মেনুর মাধ্যমে এই সাইটে শূনাপদ পোস্ট করতে পারবেন।
  • ২২. আমি মুম্বাইয়ের একজন নিয়োগকর্তা। আমি পশ্চিমবঙ্গ থেকে কিছু যুবক-যুবতি নিয়োগ করতে চাই। আমি কি এখানে আমার নাম নথিভুক্ত করতে পারি?
  • উত্তর – আপনাকে স্বাগত। আপনি এখানে নাম নথিভূক্ত করতে, শূন্যপদ পোস্ট করতে এবং কর্মপ্রার্থীদের বিশাল ও বিস্তৃত তথ্যভাণ্ডার থেকে চাহিদা অনুযায়ী নামের তালিকা তৈরি করতে পারবেন।
  • ২৩. আমি একজন ওভারসিজ রিক্রুট্মেন্ট এজেন্ট। আমি কি এখানে আমার নাম নথিভুক্ত করতে পারি?
  • উত্তর – দুঃখিত। এই মুহূর্তে এই সাইটে কেবলমাত্র এঈ দেশের শূন্যপদের জন্যই সীমাবদ্ধ। তবে আমাদের পরিকল্পনা আছে অদূর ভবিষ্যতে এই সুবিধা বিদেশের চাকরিরর জন্যেও উন্মুক্ত করে দেওয়া। অনুগ্রহ করে ততদিন অপেক্ষা করুন।
  • ২৪. আমি এখানে কতগুলি শূন্যপদ পোস্ট করতে পারি?
  • উত্তর – শূন্যপদ পোস্ট করার কোনো সীমা নেই। তবে আপনাকে নানা ধরনের শূন্যপদ আলাদা আলাদা করে পোস্ট করতে হবে।
শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানের জন্য
  • ২৫. আমরা একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এবং নানা রকম প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকি। আমরা কি আমাদের ছাত্র-ছাত্রীদের তথ্য এখানে আপলোড করতে পারি?
  • উত্তর – দুঃখিত। এই মুহূর্তে আপনাকে এই সুযোগ দেওয়া যাবে না। এখন কেবলমাত্র সেই সব শিক্ষা / প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানের অন্তিম বর্ষের ছাত্র-ছাত্রীদের তথ্যই আপলোড করা হচ্ছে যাঁরা উচ্চশিক্ষা দপ্তর বা কারিগরী শিক্ষা দপ্তরের অধীনে আছেন। ভবিষ্যতে যথাযথ কর্তৃপক্ষের দ্বারা অনুমোদিত সমস্ত প্রতিষ্ঠানই তাক্সদের নাম নথিভূক্ত করতে এবং ছাত্র-ছাত্রীদের তথ্য আপলোড করতে পারবেন। সুতরাং, অনুগ্রহ করে অপেক্ষা করুন।
  • ২৬. কারিগরী শিক্ষা দপ্তরের মাধ্যমে আমার প্রতিষ্ঠানটির নাম এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্ক ওয়েব পোর্টালে নথিভূক্ত হয়েছে। আমাদের ছাত্র-ছাত্রীরা আমাদের মাধ্যমে কী ভাবে জানতে পারবে যে তাদের নাম এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্কের তথ্যভাণ্ডারে অন্তর্ভূক্ত হয়েছে?
  • উত্তর – যখনি ছাত্র-ছাত্রীদের জীবনপঞ্জী এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্ক ওয়েব পোর্টালে আপলোড করা হবে সঙ্গে সঙ্গে তাঁদেরকে এসএমএসে বার্তা পাঠিয়ে তাঁদের নাম নথিভূক্তি সংখ্যা, ইউজার আইডি ও অস্থায়ী পাসওয়ার্ড জানিয়ে দেওয়া হবে। সেই সঙ্গে একই ভাবে আপনারাও প্রাসঙ্গিক খবর পেয়ে যাবেন।